10 Benefits of Physical Exercise শারীরিক পরিশ্রমের দশটি উপকারিতা

blog-pic-432

আমাদের একটি ভুল ধারনা হচ্ছে শারীরিক পরিশ্রম মানেই জিমনেশিয়ামে যাওয়া, ব্যায়াম করা। যেটা নিতান্তই অমূলক ধারনা। আসলে নিত্যদিনের সাধারণ কাজ কর্মের মাঝেই আমরা আমাদের প্রয়োজনীয় শারীরিক পরিশ্রম করে ফেলতে পারি, যেমন:- নিজের কাপড় ধোয়া, ঘর পরিষ্কার করা, বাগানে কাজ করা, বাজার করা ইত্যাদি। আসুন জেনে নেই “ইউএস ডিপার্টমেন্ট অফ হেলথ এন্ড হিউম্যান সার্ভিসেস” অনুযায়ী ব্যায়ামের ১০ টি উপকারী দিক:-

১) হার্ট কে করে শক্তিশালী:- আমাদের হার্ট একটি আলাদা ধরণের মাংসপেশি। কিন্তু নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম যেমন হার্টের শক্তি বাড়িয়ে দেয় ঠিক তেমনি কমিয়ে দেয় রোগ হওয়ার সম্ভাবনা।

২) ধমনীকে রাখে পরিস্কারঃ- নিয়মিত ব্যায়াম আপনার ধমনিতে বইতে থাকা অতিরিক্ত কোলেস্টেরল এবং চর্বির পরিমাণ কমিয়ে দেয়। এর ফলশ্রুতিতে আমাদের ধমনীর সংকোচন ও প্রসারণ ক্ষমতা কয়েক গুন বেড়ে যায় এবং কমিয়ে দেয় হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোক এর সম্ভাবনা।

৩) বৃদ্ধি করে ফুসফুসের কর্মক্ষমতা:- নিয়মিত ব্যায়াম আমাদের ফুসফুসের অক্সিজেন গ্রহণ এবং কার্বন ডাই অক্সাইড পরিত্যাগ করার ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে আমাদের ফুসফুসের কর্মক্ষমতা কমতে থাকে যেটি প্রতিরোধ হয় নিয়মিত ব্যায়ামের মাধ্যমে।

৪) রক্তে সুগারের পরিমাণ কমায়:- নিয়মিত ব্যায়াম করলে আমাদের মাংসপেশির যে অতিরিক্ত সুগার ব্যাবহার করে তাকে শক্তিতে রূপান্তর করার ক্ষমতা বৃদ্ধি হয়। যার ফলে আমাদের রক্তে অতিরিক্ত সুগার জমা প্রতিহত হয় এবং কমে যায় ডায়াবেটিস নামক ভয়ঙ্কর রোগ হওয়ার সম্ভাবনা।

৫) ওজন বৃদ্ধি প্রতিরোধ করে:- অতিরিক্ত ফ্যাট জাতীয় খাবার আমাদের ক্যালরি বাড়িয়ে দেয়। এই অব্যবহিত ক্যালরি শরীরে ফ্যাট এর পরিমাণ বারিয়ে দেয়। নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম ক্যালরির ঘাটতি তৈরি করে, যার ফলে এটি ফ্যাটের পরিমাণ বাড়াতে পারে না। যার ফলে স্থূল হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়।

৬) হাড়কে শক্তিশালী করে:- নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম মাংসপেশিকে শক্তিশালী করার সাথে সাথে হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধি করে। যার ফলে অস্টিওপোরোসিস নামক নীরব ঘাতক এর হাত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব হয়।

৭) ক্যান্সার প্রতিরোধ করে:- নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম আপনার প্রস্টেট, কোলন, স্তন, জরায়ুর ক্যান্সারের সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়।

৮) রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে:- নিয়মিত পরিশ্রম আপনার দৈনন্দিন জীবনের ধকল এবং দুশ্চিন্তা কমাতে সাহায্য করে। যার ফলে আপনার রক্তচাপ থাকবে নিয়ন্ত্রিত এবং প্রতিরোধ করবে উচ্চ রক্তচাপ জনিত রোগ।

৯) কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে:- নিয়মিত পরিশ্রম যেমন আপনাকে উদ্যমী করে তুলবে, ঠিক তেমনি আপনাকে রক্ষা করবে ভাল লাগে না নামক অদ্ভুত রোগ থেকে।

১০) বাড়ায় মানসিক প্রশান্তি:- গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত ব্যায়াম বিটা এন্ডোরফিন এর পরিমাণ বাড়িয়ে দেয় যা আপনাকে দিবে মানসিক এবং শারীরিক প্রশান্তি। এছাড়া সেরোটোনিন নামক ক্যামিকেল নিঃসরণ হয় যা ক্ষুধা বাড়ানোর পাশাপাশি নিদ্রাহীনতা প্রতিরোধ করে।

– ইউটিউবে স্বাস্থ্য টিপস পেতে ক্লিক করুন “Doctorola TV” (Online Health Channel) –

ডক্টোরোলা ডট কম (www.doctorola.com) প্রচারিত সকল তথ্য সমসাময়িক বিজ্ঞানসম্মত উৎস থেকে সংগৃহিত এবং এসকল তথ্য কোন অবস্থাতেই সরাসরি রোগ নির্ণয় বা চিকিৎসা দেয়ার উদ্দেশ্যে প্রকাশিত নয়। জনগণের স্বাস্থ্য সচেতনা সৃষ্টি ডক্টোরোলা ডট কমের (www.doctorola.com) লক্ষ্য। (অনুমতি ব্যাতিত ডক্টরোলার ব্লগের লেখা কোন অনলাইন বা অফলাইন মিডিয়াতে ব্যবহার করা যাবে না)

দেশজুড়ে অভিজ্ঞ ডাক্তারদের খোঁজ পেতে ও অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে ভিজিট করুন www.doctorola.com অথবা কল করুন 16484 নম্বরে।
 

Comments are closed.