পুরুষের বন্ধ্যাত্ব : কারণ ও পরীক্ষা-নিরীক্ষা

blog-pic-361

কোনও প্রকার জন্মনিরোধ ব্যবস্থা ছাড়াই কমপক্ষে ১ বছর নিয়মিত যৌন মিলনেও গর্ভ ধারণ না হলে তাকে বন্ধ্যত্ব বলা হয় অধিকাংশ মানুষ এই সময়ের মধ্যে সন্তান লাভ করে। এ সময়ের মধ্যে সন্তান ধারণ সম্ভব না হলে চিকিৎসকগণ একে বন্ধ্যত্ব সমস্যা হিসেবে আখ্যা দেন।

প্রকোপ :
– জাতীয় স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের মতে আমেরিকায় ২.৬ মিলিয়ন (২৬ লক্ষ) বিবাহিত বন্ধ্যা দম্পতির মধ্যে শতকরা ৪০ ভাগ বন্ধ্যাত্ব-জনিত সমস্যা পুরুষ বন্ধ্যত্বের কারণে ঘটে থাকে।
– তাদের মধ্যে অর্ধেকই স্থায়ী বন্ধ্যা এবং চিকিৎসা দ্বারা নিরাময় করা যায় এমন সংখ্যা অতি নগণ্য।

পুরুষ বন্ধ্যত্বের কারণসমূহ : প্রাথমিক কারণগুলো হচ্ছে-
১. শুক্রাণু তৈরি না হওয়া,
২. ক্ষতিগ্রস্ত শুক্রাণু সরবরাহ,
৩. টেসটোস্টেরন নামক হরমোনের অভাব,
৪. বন্ধ্যত্ব জন্মগত সমস্যাও হতে পারে।

বন্ধ্যত্বের আরও কারণ :
১. প্রজননতন্ত্রের নালী বন্ধ হয়ে যাওয়া অথবা ত্রুটিপূর্ণ নালী
২. অণ্ডকোষ থলির সমস্যা
৩. সিস্টিক ফাইব্রোসিস
৪. সিকেল সেল এনিমিয়া (সিকেল সেল অ্যানিমিয়া, এটি সিকেল সেল ডিজঅর্ডার নামেও পরিচিত। এটি হল এক ধরনের বংশগত অ্যানিমিয়া। সাধারণত, লোহিত কণিকা দেখতে গোলাকার ও নমনীয় এবং সহজেই রক্ত নালীর মধ্যে দিয়ে সঞ্চালিত হতে পারে। কিন্তু সিকেল সেল অ্যানিমিয়া হলে, লোহিত কণিকাগুলো অনমনীয় ও আঠাল হয়ে যায় এবং সিকেল বা অর্ধচন্দ্রের মত আকার ধারন করে। এই অস্বাভাবিক কণিকাগুলো ছোট ছোট রক্তনালীতে আটকে যায় যার কারণে দেহের বিভিন্ন অংশে রক্ত ও অক্সিজেন সরবরাহ বাধাপ্রাপ্ত হয়।)
৫. যৌন-বাহিত রোগসমূহ
৬. শুক্রাশয়ের প্রদাহ
৭. প্রোস্টেট গ্রন্থির প্রদাহ
৮. এপিডিডাইমিসের প্রদাহ
৯. প্রায় সব ধরনের কেমোথেরাপি
১০. মাম্পস
১১. আঘাতজনিত অণ্ডকোষের ক্ষতি
১২. উচ্চ-রক্তচাপের ওষুধ সেবন
১৩. পরিপাকতন্ত্রের অসুখ
১৪. হরমোন-জনিত সমস্যা : হাইপোথ্যালামো-পিটুইটারি গোনাডাল অক্ষের অস্বাভাবিকতার জন্যে টেসটোস্টেরনের অভাব।
১৫. আত্তীকরণের সমস্যা (হেমোক্রোমাটোসিস)
১৬. শারীরিক অসুস্থতা/ বৈকল্য যেমন : উচ্চ জ্বর, প্রদাহ, কিডনির রোগ।
১৭. অণ্ডকোষের ক্যান্সার
১৮. বিপরীতমুখী বীর্যপাত ইত্যাদি।

কি কি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়?
১. বীর্য পরীক্ষা
২. পোস্ট কয়টাল টেস্ট
৩. শুক্রাণুর ভেদ ক্ষমতা
৪. এন্টিস্পার্ম এন্টিবডি
৫. বীর্যপাত পরবর্তী প্রস্রাব পরীক্ষা ইত্যাদি।

– ইউটিউবে স্বাস্থ্য টিপস পেতে ক্লিক করুন “Doctorola TV” (Online Health Channel) –

ডক্টোরোলা ডট কম (www.doctorola.com) প্রচারিত সকল তথ্য সমসাময়িক বিজ্ঞানসম্মত উৎস থেকে সংগৃহিত এবং এসকল তথ্য কোন অবস্থাতেই সরাসরি রোগ নির্ণয় বা চিকিৎসা দেয়ার উদ্দেশ্যে প্রকাশিত নয়। জনগণের স্বাস্থ্য সচেতনতা সৃষ্টি ডক্টোরোলা ডট কমের (www.doctorola.com) লক্ষ্য।
 
দেশজুড়ে অভিজ্ঞ ডাক্তারদের খোঁজ পেতে ও অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে ভিজিট করুন www.doctorola.com অথবা কল করুন 16484 নম্বরে।

Comments are closed.