নারীদের রক্তশূন্যতা / রক্তস্বল্পতা

blog-pic-197

বাংলাদেশের প্রতি ১০০ জনে ৫৫.৩ মানুষ রক্তশূন্যতায় ভুগে। এর ৬৬.৩% নারী। আয়রনের অভাবে দেহে রক্তশূন্যতা দেখা দেয়। আয়রন মূলত লোহিত কণিকার মধ্যে থাকে এবং অক্সিজেন পরিবহনের মাধ্যমে দেহের সকল কোষ কে সতেজ রাখে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে হিমোগ্লোবিন (gm/dl)  অনুযায়ী  রক্তশূন্যতার প্রকারভেদঃ- হালকা (১০-১০.৯), মাঝারি (৭-১০), তীব্র (৪-৬.৯), গুরুতর (৪ থেকে কম)।

 উপসর্গঃ
১) শরীর ও চেহারা ফ্যাকাসে হয়ে যাওয়া।
২) দুর্বলতা।
৩) বুক ধড়ফড় করা।
৪) সামান্য পরিশ্রমে হাপিয়ে যাওয়া ও ব্যয়ামের পর শ্বাসকষ্ট হওয়া।
৫) কানে ঝিঁঝিঁ শব্দ শোনা।
৬) খাবারে অরুচি ও ক্ষুধামন্দা।
৭) নখ ভঙ্গুর হওয়া বা নখের আকৃতি চামচের মত হওয়া।
৮) কাজকর্ম পড়ালেখায় অমনোযোগী হওয়া।কারণসমূহঃ
১) খাদ্যতালিকায় আয়রন সমৃদ্ধ খাবার পর্যাপ্ত পরিমাণে না থাকা।
২) কোন কারণে আতিরিক্ত রক্তক্ষরণ। রক্তক্ষরণের কারনগুলো হলঃ
ক) কোন কারণে মাসিকে আতিরিক্ত রক্তস্রাব।
খ) শরীরে কৃমির সংক্রমণ।
গ) পরিপাকতন্ত্রে আলসার।
ঘ) অপারেশনের সময়/জখম পরবর্তী অতিরিক্ত রক্তপাত।
ঙ) অতিরিক্ত ব্যথানাশক ওষুধ/স্টেরয়ড ব্যবহারে পাকস্থলী থেকে রক্তক্ষরণ।চ) পাইলস।
৩) শরীরের আয়রনের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়া (গর্ভকালীন সময় নবজাতক কে স্তন্যদানের সময় শিশুর শারীরিক বৃদ্ধির সময় আয়রনের চাহিদা বাড়ে।প্রতিরোধের উপায়ঃ
১) আয়রনসমৃদ্ধ খাবার, ফলমূল ও শাকসবজি খাদ্যতালিকায় রাখতে হবে
২) মহিলাদের মাসিকে আতিরিক্ত রক্তস্রাবের কারণ নির্ণয় করা ও তার যথাযথ চিকিৎসা করা।
৩) কৃমিনাশক ওষুধ সেবন ও পরিষ্কার থাকা।
৪) গর্ভাবস্থায়, স্তন্যদানকালে, বাড়ন্ত বয়সে ও অপরিণত শিশুর ক্ষেত্রে স্বাভাবিক এর চেয়ে বেশি আয়রন সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ।৫) ব্যথানাশক ওষুধের অতিরিক্ত ব্যবহার পরিহার করা।
৬) হিমোগ্লোবিন <১০gm/dl হলে থ্যালাসেমিয়ার পরীক্ষা করা উচিত।চিকিৎসাঃ রক্তশূন্যতার পর্যায় ভেদে আয়রন ক্যাপসুল, ইনজেকশন বা রক্ত পরিসঞ্চালনের মাধ্যমে এর চিকিৎসা করা যায়।
ডাঃ রুশদানা রহমান তমা, কনসালট্যান্ট (গাইনী), সরকারী কর্মচারী হাসপাতাল

ডক্টোরোলা ডট কম (www.doctorola.com) প্রচারিত সকল তথ্য সমসাময়িক বিজ্ঞানসম্মত উৎস থেকে সংগৃহিত এবং এসকল তথ্য কোন অবস্থাতেই সরাসরি রোগ নির্ণয় বা চিকিৎসা দেয়ার উদ্দেশ্যে প্রকাশিত নয়। জনগণের স্বাস্থ্য সচেতনা সৃষ্টি ডক্টোরোলা ডট কমের (www.doctorola.com) লক্ষ্য।

দেশজুড়ে অভিজ্ঞ ডাক্তারদের খোঁজ পেতে ও অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে ভিজিট করুন www.doctorola.com অথবা কল করুন 16484 নম্বরে।

Comments are closed.