কিডনি রোগে ডায়ালাইসিস নিয়ে কিছু ভুল ধারনা ও সঠিক তথ্য – Kidney dialysis

152902-dialysis-machine

বাংলাদেশের মানুষের সার্বিক স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধির প্রয়াসে ডক্টোরোলা ডট কমের (www.doctorola.com) আজকের বিষয়-“ডায়ালাইসিসের ভয় আর নয়”। কিডনি রোগ নিয়ে আমাদের মধ্যে প্রচলিত কিছু ভুল ধারনা ও এর সঠিক তথ্য দেয়া হলঃ

# ভুল ধারনাঃ কিডনির অসুখের সর্বশেষ চিকিৎসা ডায়ালাইসিস।
সঠিক তথ্যঃ সকল প্রকার কিডনি রোগে ডায়ালাইসিস লাগে না। দু’টো কিডনির সম্মিলিত কার্যকারিতা শতকরা ১৫ ভাগের কম হলে ডায়ালাইসিস করতে হয়। কিডনি অসুখের মাত্রা অনুযায়ী লাইফ স্টাইল পরিবর্তন, খাদ্যাভ্যাস নিয়ন্ত্রণ, ওষুধ, ডায়ালাইসিস, কিডনি ট্রান্সপ্লান্টের মাধ্যমে চিকিৎসা করা হয়।

# ভুল ধারনাঃ ডায়ালাইসিসের মাধ্যমে কিডনি রোগের চিকিৎসা অত্যন্ত ব্যয় বহুল।
সঠিক তথ্যঃ ডায়ালাইসিসের খরচ সরকারি বেসরকারি হাসপাতাল এবং ডায়ালাইসিস সেন্টারের উপর নির্ভর করে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজ সেবা অধিদফতর এ ব্যাপারে বিশেষ আর্থিক সাহায্য প্রদান করে।

# ভুল ধারনাঃ কিডনির অসুখে যত দ্রুত ডায়ালাইসিস শুরু করা যায় তত আয়ু কমে।
সঠিক তথ্যঃ এন্ড স্টেজ রেনাল ডিজিস অর্থাৎ কিডনি ফেইলরের অন্তিম পর্যায়ের রোগীদের কিডনি রোগ ছাড়াও অন্যান্য জটিলতা দেখা দেয় যেগুলো মূলত রোগীর মৃত্যু ঝুঁকি বৃদ্ধি করে। কিডনি প্রতিস্থাপন ছাড়া ডায়ালাইসিসই একমাত্র উপায় যার মাধ্যমে রোগীর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা বাড়ে।

# ভুল ধারনাঃ ডায়ালাইসিস কিডনির কার্যক্ষমতা ফিরিয়ে দিতে পারে।
সঠিক তথ্যঃ ডায়ালাইসিসের মাধ্যমে মানব দেহে সৃষ্ট বর্জ পদার্থ যেটি রক্তে জমা হয় সেটি শরীর থেকে অপসারণের মাধ্যমে কিডনি রোগীর কিছু শারীরিক উপসর্গ উপশম করে। ডায়ালাইসিসের মাধ্যমে ইলেক্ট্রোলাইট ব্যালেন্স রক্ষা করা হলেও কিডনির অন্যান্য কাজ যেমনঃ রক্ত চাপ নিয়ন্ত্রণ, দেহে ক্যালসিয়ামের সমতা রক্ষা করা, লোহিত রক্ত কণিকা তৈরিতে ভূমিকা রাখা ইত্যাদি ব্যহত হয়। এনিমিয়া, উচ্চ রক্তচাপ ও অন্যান্য জটিলতার জন্য ডায়ালাইসিসের পাশাপাশি অন্যান্য ওষুধ সেবন করতে হয়।

# ভুল ধারনাঃ ডায়ালাইসিসের রোগীর সবসময় দূর্বল লাগে ও স্বাভাবিক কাজকর্মে ব্যাঘাত ঘটে।
সঠিক তথ্যঃ দূর্বলতা কিডনি ফেইলর রোগীর অন্যতম প্রধান শারীরিক সমস্যা। এছাড়া খাবারে অরুচি, বমি ভাব, ওজন হ্রাস, ত্বকের শুষ্কভাব, বর্ণ পরিবর্তন ও চুলকানি, মূত্রের পরিমাণ উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পাওয়া, শরীর ব্যথা, মনযোগ ধরে রাখতে না পারা কিডনি ফেইলরের অন্যান্য উপসর্গ। ডায়ালাইসিস করলে এসকল সমস্যা কমে আসে। ডায়ালাইসিস করে দীর্ঘদিন কর্মক্ষম থেকে স্বাভাবিক জীবন যাপন করা যায়।

# ভুল ধারনাঃ ডায়ালাইসিস প্রক্রিয়াটি ব্যথাযুক্ত।
সঠিক তথ্যঃ ডায়ালাইসিসের জন্য ফিস্টুলা করতে যতটুকু ব্যথা লাগে সেটি ছাড়া পুরো প্রক্রিয়াটি ব্যথা মুক্ত।

সতর্কতাঃ কিডনির অসুখ এক নীরব ঘাতক। ৪০ বছরের পর ধীরে ধীরে আপনার কিডনির কার্যক্ষমতা হ্রাস পেতে থাকে। নিয়মিত ব্যায়াম, ওজন নিয়ন্ত্রণ, ব্যথা নাশক ওষুধের সচেতন ব্যবহার, পুষ্টিকর সুষম খাবার, রক্তচাপ-ব্লাড সুগার-কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখা, ধূমপান পরিহার, বাৎসরিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা, কিডনি রোগ সম্পর্কে জানা এবং যে কোন কিডনি রোগ জনিত ঝুঁকি, পরিবারে কারো কিডনি রোগ থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়ার মাধ্যমে কিডনি রোগ প্রতিরোধ এবং প্রাথমিক অবস্থাতেই শনাক্ত করা সম্ভব।

ডাঃ মোহিব নীরব
রেসিডেন্ট, বিএসএমএমইউ

ডাক্তারের সাথে আনলিমিটেড কথা বলতে ও স্বাস্থ্য সেবা জনিত খরচে ক্যাশব্যাক পেতে ই-স্বাস্থ্য মেম্বার হওন। ক্লিক করুন এখানে।

ডক্টোরোলা ডট কম (www.doctorola.com) প্রচারিত সকল তথ্য সমসাময়িক বিজ্ঞানসম্মত উৎস থেকে সংগৃহিত এবং এসকল তথ্য কোন অবস্থাতেই সরাসরি রোগ নির্ণয় বা চিকিৎসা দেয়ার উদ্দেশ্যে প্রকাশিত নয়। জনগণের স্বাস্থ্য সচেতনা সৃষ্টি ডক্টোরোলা ডট কমের (www.doctorola.com) লক্ষ্য।

দেশজুড়ে অভিজ্ঞ ডাক্তারদের খোঁজ পেতে ও অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে ভিজিট করুন www.doctorola.com অথবা কল করুন 16484 নম্বরে।

2 Comments

  1. Noor E Zannat says:

    I’m interested to know about kidney.